কবিতাগানবাংলা কবিতাসংবাদ

জন্ম-জন্মান্তরের ইচ্ছে

জন্ম-জন্মান্তরের ইচ্ছে
– রূপন দাস

মাঝে মাঝে আমারও সুদূর আকাশের
নক্ষত্ররাজি বা তারা হতে ইচ্ছে করে,
ইচ্ছে করে যেন জোনাকির আলো হয়ে
আঁধার ঘেরা নিশুতি রাতে আলো ছড়াতে;
সবি লোক বিশ্বাস: জানি,
মৃতেরা হয় তারা, হয়তো বা জোনাকি!

আবার কেউ মৃত্যুর পর হতে চায়-
বটবৃক্ষ বা চির সবুজময় বন-বনানী,
হতে চায় ভালো লাগার মায়াবতী সেই পাখী
যার ডানা মেলে সুদূর নীলাকাশ দেবে পাড়ি;
কত না ইচ্ছে মনের ভিতর নিশিদিন আনাগোনা
ভেবে ভেবে নিজের মাঝে নিজেই আত্মহারা;
ইচ্ছে গুলো যেন চিরকাল জন্ম থেকে জন্মান্তরে
মানবেরা পেয়েছি বিধাতার একান্ত সদ-ইচ্ছে!

কেউ হতে চায় চাঁদনীস্নাত ঝলমলে রাতের
মায়ামাখা ফালগুনী আকাশের মায়াবী জোছনা,
হতে চায় জোছনা ভেজা রাতে সমুদ্র বিহারী,
যেখানে মন মাতানো সিংহের ন্যায় সমুদ্রের
বিশাল জলরাশির ভয়ংকর গর্জন; উন্মদ হয়ে
মন ভেসে যায় কিছুটা ভয়ে তবু আনন্দে ভাসে,
এ যেন মানবের জন্ম জন্মান্তরের ইচ্ছে!
ইচ্ছে গুলো যেন চিরকাল জন্ম থেকে জন্মান্তরে
মানবেরা পেয়েছি বিধাতার একান্ত সদ-ইচ্ছে!

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Check Also

Close
Back to top button
Close
Close